৩ দিনব্যাপী খাদ্য পর্যটন এর উপর প্রশিক্ষণ কর্মশালা অনুষ্ঠিত

0
445

প্রেস বিজ্ঞপ্তি

গত ৩১ আগস্ট ২০২০ তারিখে বাংলাদেশ ট্যুরিজম এক্সপ্লোরার্স এসোসিয়েশন (বিটিইএ) কর্তৃক আয়োজিত ৩ দিন ব্যাপী খাদ্য পর্যটন ও নারী উদ্যোক্তা শীর্ষক অনলাইন কোর্সের সমাপ্তি হয়েছে। কোর্সে রেজিস্ট্রেশন করেন ৯৫০ জন। প্রশিক্ষণের প্রথম দিনে খ্যাতনামা রন্ধনশিল্পী ও বাংলাদেশ কুকিং এসোসিয়েশনের সভাপতি কেকা ফেরদৌসী অতিথির বক্তব্যে রন্ধনশিল্পীদেরকে পর্যটন কর্মী হিসেবে স্বীকৃতি দেওয়ার জন্য যথাযথ কর্তৃপক্ষের প্রতি আহ্বান জানান। দ্বিতীয় দিনে ন্যাশনাল হোটেল এন্ড ট্যুরিজম ট্রেনিং ইনস্টিটিউটের প্রিন্সিপাল আখলাকুর রহমান অতিথি হিসেবে সরকারের পাশাপাশি বেসরকারি পর্যায়ে প্রশিক্ষণ প্রদানের উপর বিশেষ গুরুত্ব আরোপ করেন। শেষ দিনে খ্যাতনামা রন্ধনশিল্পী ও বাংলাদেশ কুকিং এসোসিয়েশনের সাধারণ সম্পাদক মেহেরুন নেছা অতিথি হিসেবে বক্তব্য রাখতে গিয়ে বলেন, খাদ্য পর্যটনে বাংলাদেশের ঐতিহ্যবাহী খাবার ও পিঠাকে যুক্ত করে প্রমোশন করতে হবে। এই প্রসঙ্গে তিনি সারাদেশে কমিউনিটি কুকিং প্রশিক্ষণ ব্যবস্থা গড়ে তোলার জন্য বিটিইএ-ও প্রতি আহ্বান জানান।

অনুষ্ঠানে সভাপতিত্ব করেন বিটিএইএ-র চেয়ারম্যান শহীদুল ইসলাম সাগর। তিনি তিন দিনের প্রশিক্ষণের সাথে সম্পৃক্ত সকল অতিথি, প্রশিক্ষক ও অংশগ্রহণকারীদের প্রতি ধন্যবাদ ও কৃতজ্ঞতা প্রকাশ করেন। তিনি আরো জানান যে, অংশগ্রহণককারীর ইমেইলে চলতি মাসের ৩য় সপ্তাহে প্রশিক্ষণের ডিজিটাল সার্টিফিকেট প্রেরণ করা হবে। দেশের প্রত্যন্ত অঞ্চলের মানুষকে পর্যটন প্রশিক্ষণের আওতায় আনার উদ্দেশ্যে ভবিষ্যতে আঞ্চলিক পর্যায়ে প্রশিক্ষণকে সম্প্রসারিত করা হবে বলে তিনি প্রতিশ্রুতি প্রদান করেন। সকলের সহযোগিতা পেলে বিটিএইএ ২০২১ সালের ১৮ এপ্রিল বাংলাদেশে প্রথম ওয়ার্ল্ড ফুড ট্রাভেল ডে উদযাপন করা হবে বলে তিনি সকলকে অবহিত করেন।

প্রশিক্ষণ প্রদান করেন রুবিনা রুবি, শারমিন ইসলাম, ড চিং চিং, কিশোর রায়হান, জিয়াউল হক হাওলাদার ও মোখলেছুর রহমান। ধারাবাহিক সঞ্চালনায় ছিলেন আফরোজা নাজনীন সুমী ও ফারহানা নাজনীন ফ্লোরা। উদ্যোক্তা হওয়ার গল্প উপস্থাপন করেছেন তানিয়া শারমিন, হাসিনা আনসার, ফৌজিয়া তাজরিন দোলা সোনিয়া হক ও সাবেরা মারজানা লুচি। কোর্সে খাদ্য পর্যটনের পরিচিতি, রন্ধন প্রশিক্ষণ, খাদ্য বাজারজাতকরণ, খাদ্য ঐতিহ্য এবং নারী উদ্যোক্তাদের প্রতিবন্ধকতা ও সমাধানের উপায় ইত্যাদি বিষয়ে আলোচনা করা হয়। অংশগ্রহণকারীদের মধ্য থেকে অনেকেই তাদের উদ্যোক্তা হওয়ার গল্প বলেন ও অভিজ্ঞতা তুলে ধরেন। উল্লেখ্য যে, বিটিইএ পর্যটনের সাথে সম্পৃক্ত নারী-পুরুষদেরকে সংগঠিত করে পর্যটনের নানামুখী বিষয় নিয়ে কাজ করে যাচ্ছে।