ঢাকাগামী তূর্ণা নিশিতা এবং চট্রগ্রাম গামী উদয়ন এক্সপ্রেসর সংঘর্ষ

0
2510

আমরা ফেবুক বরাত জানতে পারি কিছুখন আগে অর্থাৎ ১২ তারিখ রাত ৩ টায় এই ঘটনা ঘটে।

ফেসবুক থেকে পাওয়া তহ্য হুবুহু দেওয়া হলো।

এই মাত্র ট্রেন দূর্ঘটনা😢 আমার মনে হয় বাংলাদেশে এটাই সবচেয়ে বড় ট্রেন দূর্ঘটনা। খুব ব্যাডলি বলতে হয় একটু ব্যতিক্রম হলে আমরাও হ্যাফ পরিবার(আমাদের ট্রেনসহ) এই দূর্ঘটনার স্বিকার হতে পারতাম ‘আল্লাহর ইচ্ছার উপর তো আর কারো হাত নাই। তবে খুব কষ্ট লাগছে নিহতদের প্রতি ‘ তাদের জন্যও ত এই রাতে তাদের পরিবার অপেক্ষা করে আছিল। 😢এমন দূর্ঘটনা আমি আমার জীবনে আর দেখি নি। বিশেষকরে মনে হচ্ছে কোনো টিভির হেডলাইন ও পত্রপত্রিকায় ও দেখি নি। কয়েকশত লাশ পড়ে আছে। আমরা ঢাকায় যাচ্ছিলাম ‘ আমরা ছিলাম ‘তরুনা নিশিতা’ ট্রেনে। আমাদের ট্রেনটি মাত্র কুমিল্লা ছেড়ে কিছুদূর আসছিল। মধ্যরাতে আমাদের ট্রেনটা মোটামুটি অনেক গতিতেই চলছিল। অামাদের ট্রেনটি যেই লাইনে চলছিল অপর ট্রেনটির লাস্ট কয়েকটা বগী এখনো আমাদের লাইন ক্রস করে পুরোপুরি বিপরীত লাইনে যেতে পারে নি,,ফলে অনেক বড় ধাক্কার সম্মুখীন হয় আমরা ‘ ধাক্কায় আমাদের ট্রেনটি লাইনে ঠিক থাকতে পারলেও অপর ট্রেনটি লাইনে থাকতে পারে নি এবং ঐ ট্রেনের শেষদিকের সবকয়টি বগীই উল্টে যায়। আমি আমার ছোট নানাসহ নেমে দেখলাম এক্সিডেন্ট হওয়া বগীর যত যাত্রী দেখলাম সবাই মৃত।একটা বগীর একজন লোকও বাঁচে নি,,একজন মহিলাকে জীবিত দেখলেও ঐ মহিলার দুই পা কেটে গেছে ‘চিৎকার করে শুধু চাইতেছে পানি। এছাড়াও কারো হাত নেই ‘ কারো পা নেই এমন লাশ ত অনেক পড়ে আছে। শুধু চিৎকার করতে আছে।

আরিফ মাহমুদ ইমতেয়াজ নূর লিখেনঃ ঢাকাগামী তূর্ণা নিশিতা এবং চট্রগ্রাম গামী উদয়ন এক্সপ্রেসর সংঘর্ষ (মন্দবাগ স্টেশন) এরিয়া, হতাহতের আশঙ্কা রয়েছে। আশাপাশে যারা আছেন, সহযোগিতায় এগিয়ে আসুন প্রাপ্ততথ্য মতে, ৭২৪ উদয়ন এক্সপ্রেস-২৯৩৪ মন্দবাগ লুপ লাইনে প্রবেশকালে ঢাকা অভিমুখী ৭৪১ তুর্ণা এক্সপ্রেস-২৯২৩ অপোজিট হতে এসে কলিশন ঘটায়,উদয়নের অন্তত ২টি কোচ মারাত্মকভাবে ক্ষতিগ্রস্ত। হতাহতের আশংকা রয়েছে। চট্টগ্রাম ও নোয়াখালীর সাথে সারা দেশের রেল যোগাযোগ সাময়িক বন্ধ। ফেসবুকে ইজতিহাদ মাসরুর (সম্ভবত ট্রেন যাত্রী) লিখেছেন, Vai ei area te poricito kono garir driver poricito thkle aste bolen, soto soto manus koste katracche. 01677679557 © Iztihad Masrur Chowdhury