পর্যটনে নারী উদ্যোক্তা সনি

0
855

‘দি ট্যুরিজম ভয়েস’ পত্রিকা সব সময় পর্যটন শিল্পের উন্নয়নে এবং শিল্পের সাথে যুক্ত কিছু ব্যতিক্রমী মানুষকে তুলে ধরার প্রানন্তর চেষ্টা করে, এবং সেই মানুষ গুলোর পর্যটন উদ্যোক্তা হয়ে ওঠার লড়াই কে সম্মান জানিয়ে তাদের পাশে থাকার চেষ্টা করে। আজ তুলে ধরবো তেমনি একজন মহীয়সী নারী আফরোজা আহমেদ সনিকে।

সনি যশোর মোল্লা পড়ার (ঢাকা রোড) বাসিন্দা। ১৯৮৩ সালে সম্ভ্রান্ত মুসলিম পরিবারে সনি জন্ম হয়। তিন ভাইবোনের মধ্যে সনি অত্যন্ত মেধাবী ও সবার বড়। সে যশোর এন এম খাঁন সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয় থেকে লেখাপড়া শেষ করে, যশোর সরকারি বালিকা উচ্চ বিদ্যালয় থেকে ১৯৯৯ সালে এসএসসি, যশোর সরকারি সিটি কলেজ থেকে ২০০১ সালে এইচএসসি পাশ করেন। এতপর যশোর এমএম কলেজ থেকে ২০০৬ সালে দর্শন বিষয়ে স্নাতকোত্তর ডিগ্রি অর্জন করেন। পরবর্তীতে “পল্লী কর্ম সহায়ক ফাউন্ডেশন (SEIP) থেকে ফুড এন্ড বেভারেজ এর উপর প্রশিক্ষণ নিয়ে গড়ে তোলেন সনি’স কুকিং (Sony’s Cooking) নামক প্রতিষ্ঠান। সনি তার প্রতিষ্ঠানে তৈরিকৃত খাদ্য, হোম মেইড কেক ও ক্যাটারিং সার্ভিস ফুডপান্ডার সাথে লিয়াঁজো করে যশোর জেলায় সরবরাহ করে চলেছে। এছাড়া যশোরে যেকোন অনুষ্ঠানের জন্য ক্যাটারিং সার্ভিস দিয়ে থাকে।


২০১৯ সালে লবি রহমান ফাউন্ডেশনের থেকে পিঠা প্রতিযোগিতা বাংলাদেশের মধ্যে তৃতীয় স্থান লাভ করেন। ডিপ্লোমা মিষ্টির লড়াই সিজন-৬ প্রতিযোগিতায় যশোর থেকে নির্বাচিত হোন।

ছাত্র জীবন থেকে বিভিন্ন সামাজিক সংগঠনের যুক্ত থেকে সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠান, ছবি আঁকা প্রতিযোগিতা, অভিনয়, আবৃত্তি ইত্যাদি কর্মকাণ্ডে যুক্ত থাকতেন সনি। স্কুল জীবন থেকে কিছু করার চেষ্টা করতেন সনি, বিভিন্ন রকম হাতের কাজ, ব্লক বুটিকস সহ ক্ষুদ্র ভাবে ছোটখাটো বিজনেস করা ছিলো তার অভ্যাস। শিক্ষা জিবনে ২০০৩ সালে বিবাহ বন্দনে আবদ্ধ হোন এবং শিক্ষা জিবনেই ২০০৫ সালে প্রথম সন্তানের জন্ম দান করেন। বর্তমানে সনি ৩ সন্তানের জননী। সন্তান লালন পালন করার কারনে মাঝখানে কিছুদিন ব্যবসা বন্ধ রেখেছিলেন কিন্তু বর্তমানে পুরোদমে চালু রেখেছেন।

সনি সব সময় নিজের একটা পরিচয় তৈরি করতে চাওয়া থেকে শুরু বেকিং নিয়ে কাজ করেন, এখন বিভিন্ন সময় অনলাইনে ও অফলাইনে বিভিন্ন ট্রেনিং পোগ্রামে ক্লাস নেন। এমন কি যশোরের নারীদের জন্য নিজ বাসায় বিভিন্ন রান্নার প্রশিক্ষণের ব্যবস্থা করেছেন।


সনির ব্যবসা প্রতিষ্ঠান Sony’s Cooking বিভিন্ন রকম খাবার, কেক, বিস্কুট, বিরিয়ানি ইত্যাদি খাবার তৈরি, বিক্রয় ও সরবরাহ করে থাকেন। তিনি আমাদের জানিয়েছেন একদিন খুলনা বিভাগের সফল নারী পর্যটন উদ্দোক্তা হবার সপ্ন দেখেন। স্বপ্ন দেখেন একদিন পর্যটকদের জন্য যশোরে হোমস্টে চালু করবেন।

উপসংহার; দি ট্যুরিজম ভয়েস আফরোজা আহমেদ সনির উত্তরোত্তর মঙ্গল কামনা করে এবং যে ভবিষ্যতে সনির যে কোন কাজের পাশে থাকার প্রানান্তর চেষ্টা করে তার সোনালি স্বপ্নকে দেশে বিদেশে ছড়িয়ে দিতে সর্বদা সহযোগিতা করার আশ্বাস দিচ্ছে।